Mizanur Rahman Azhariইসলামি লেকচার

মসজিদ থেকে বাচ্চাদেরকে বের করে দেয়ার ফলে যে ক্ষতি হচ্ছে!!!

মসজিদ থেকে বাচ্চাদেরকে বের করে দেয়ার ফলে যে ক্ষতি হচ্ছে!!!
Mizanur Rahman azhari

বিশ্ব নবী বলেছেন কেয়ামতের একটা আলামত, বক্তব্য হবে লম্বা আর নামায হবে খাট। এখন নামায খাট করে, রুকুতে পিট সোজা হয় না, রুকু দিয়ে দাড়িয়ে সোজা হয়ে একটু দিরস্থীর ভাবে থাকা এটা ওয়াজিব। ওয়াজিব তরক করলে সেজদাহু সাহু দিতে হয়।

বিশ্ব নবী বলেছেন, সবচেয়ে বড় চোর হচ্ছে যে নামাযে চুরি করে। কিভাবে নামাযে চুরি করে, বিশ্ব নবী বললেন রুকু সিজদায় চুরি করে। রুকুর পিট সোজা হয় না, রুকু থেকে সোজা হয়ে একটু দিরস্থীর হয়ে দাড়ায় না। দুই সিজদার মাঝখানে বসা কিন্তু ওয়াজিব। নামাযে কোন তাড়াহুড়া নাই।

জান্নাতে যাওয়ার প্রথম কাজ হচ্ছে জামায়াতে নামায আদায় করা। সর্ব প্রথম আল্লাহ্‌ তায়ালা যে জিনিস এর হিসেব কেয়ামতের দিন চাইবেন সে হিসাবটা হল সালাত এর। সালাত কায়েম করতে হবে।

অনেকে ছোট বাচ্চা মসজিদে দেখলে রেগে যায়, রাগবেন না আপনারা। ওরা চিল্লা চিল্লি করবে আওয়াজ করবে কিচিরমিচির করবে এটাইতো বাচ্চাদের সৌন্দর্য। চিল্লা চিল্লি কি বুঝের মানুষ করবে, কখনোই না।

পিছনে যদি বাচ্চাদের আওয়াজ না শুনা যায় তাহলে বুজতে হবে আপনার পরবর্তী জেনারেশন নামাযে উপস্থিত থাকবে না বা নামায পড়বে না। অতএব সতর্ক হোন, বাচ্চাদের মসজিদে নিয়ে যান। এবং এই সালাতের হিসাব হবে সর্বপ্রথম হিসাব। এই সালাতের হিসাব যদি সহজ হয়ে যায় সব সহজ হয়ে যাবে।

Tags
Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close